Diclearation Shil No : 127/12
সিলেট, বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৭ আশ্বিন ১৪২৮, ১৩ সফর​ ১৪৪৩

শিরোনাম :
প্রিয় নেত্রীর সাথে মন উজাড় করে কথা বলেছি- এমপি হাবিব || দল শক্তিশালী করতে এমপিদের সাংগঠনিক দায়িত্বে লাগাম টানার ইঙ্গিত || আ.লীগের ২০ নেতাকে ক্ষমা করে দিয়েছেন শেখ হাসিনা || বাফুফের রেফারি হলেন বালাগঞ্জের ফুটবলার আঞ্জব || শ্রীমঙ্গল উপজেলা চেয়ারম্যান পদে কে হচ্ছেন নৌকা এর মাঝি? || সিলেট-৩ আসনের নবনির্বাচিত এমপিকে মতিউর রহমান শাহীনের অভিনন্দন || শফিক চৌধুরীকে মতিউর রহমান শাহীনের অভিনন্দন || সাইফুর রহমানের মৃত্যুবার্ষিকীতে শ্রীমঙ্গল বিএনপি’র শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ || সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতির দায়িত্বে শফিক চৌধুরী || সিলেট-৩ আসনে আওয়ামী লীগের হাবিব বিপুল ভোটে বিজয়ী ||

আ.লীগের ২০ নেতাকে ক্ষমা করে দিয়েছেন শেখ হাসিনা

 প্রকাশিত: ১০, সেপ্টেম্বর - ২০২১ - ০১:০৮:১৫ AM

কূল ডেস্ক :: দলের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ করা প্রায় ২০ নেতাকে ক্ষমা করে দিয়েছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে দলটির কার্যনির্বাহী সংসদের সভা শেষে একথা জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহণ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

সভা শেষে গণভবনের মূল ফটকে দাঁড়িয়ে সাংবাদিকদের বৈঠকের বিষয়বস্তু তুলে ধরেন ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, পাবনায় গত পৌরসভা নির্বাচন উপলক্ষে অনেকেই বিদ্রোহ করেছিলেন, পৌর এবং সদর এলাকার নেতারা। তারা ক্ষমা চেয়ে একটা চিঠি পাঠিয়েছেন; প্রায় ২০ জন নেতা। তাদের ক্ষমা করে দিয়েছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। আবার উনি (শেখ হাসিনা) এটাও বলেছেন, যারা দলের ডিসিপ্লিনের (শৃঙ্খলা) বাইরে কাজ করেছেন, বিভিন্ন জায়গায় তাদের বিরুদ্ধে তাৎক্ষণিক শাস্তির ব্যবস্থা নিতে হবে। তাদের ব্যাপারে ছাড় দেওয়া যাবে না।

বৈঠকে আলোচিত সাংগঠনিক বিভিন্ন বিষয় তুলে ধরে ওবায়দুল কাদের বলেন, যেখানে যেখানে সাংগঠনিক সমস্যা আছে এবং যেগুলো সমাধান করা দরকার, সেগুলোর ব্যাপারে নির্দেশনা দিয়েছেন দলীয় সভাপতি। কিছু কিছু ছোটখাটো কলহ-বিবাদ আছে, সেগুলোও মীমাংসা করার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। 

জাতীয় সম্মেলন নিয়ে সভায় কোনো কথা হয়েছে কি না? এমন প্রশ্নের জবাবে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘এ বিষয় এজেন্ডাতে ছিল না।’

তিনি বলেন, পরবর্তী (দ্বাদশ) নির্বাচনের প্রস্তুতির লক্ষে আমাদের অর্থনৈতিক নীতিমালা প্রণয়ন করার নির্দেশনা দিয়েছেন দলীয় সভাপতি শেখ হাসিনা। দলের বিভিন্ন উপকমিটিগুলোর সেমিনারের মাধ্যমে উঠে আসা প্রয়োজনগুলো পরবর্তী নির্বাচনের ইশতেহারে অন্তর্ভুক্ত করা হবে। উপকমিটিগুলোকে এ বিষয়ে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। যেমন- স্বাস্থ্য ও শিক্ষায় আমরা কী কী অন্তর্ভুক্ত করব- তা তুলে ধরা হবে।

সভায় সরকারের বিরুদ্ধে অপপ্রচার ও ষড়যন্ত্র চলছে তা নিয়েও আলোচনা হয়েছে জানিয়ে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, যতই নির্বাচন ঘনিয়ে আসছে, ততই অপপ্রচারের মাত্রা বাড়ছে। অপপ্রচার ও ষড়যন্ত্র করছে সরকারের বিরুদ্ধে। এসব অপপ্রচারের জবাব দিতে হবে। চক্রান্তমূলক তৎপরতার বিরুদ্ধে দলের সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে প্রতিরোধ করতে হবে। 

তিনি জানান, দলীয় সভাপতি শেখ হাসিনা অত্যন্ত সন্তোষ প্রকাশ করেছেন সহযোগী সংগঠনের নেতাদের প্রতি। তারা সারা দেশে ঘুরে ঘুরে করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলা করেছেন, মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন। এজন্য তিনি খুশি হয়েছেন। সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

আপনার মন্তব্য

সর্বাধিক পঠিত

সর্বশেষ

Top