Diclearation Shil No : 127/12
সিলেট, মঙ্গলবার, ১৯ জানুয়ারি ২০২১, ৬ মাঘ ১৪২৭, ৩ জুমাদিউস-সানি ১৪৪২

শিরোনাম :
বালাগঞ্জে জামালপুর ক্রীড়া সংস্থার কম্বল ও অনুদান প্রদান || আলাপুর ওয়েলফেয়ার অর্গানাইজেশন'র গৃহ উপহার || বনগাঁও প্রিমিয়ার লীগ ক্রিকেটের ফাইনাল সম্পন্ন || বালাগঞ্জে আজিজপুর প্রিমিয়ার লীগ ক্রিকেট উদ্বোধন || বালাগঞ্জে রেজওয়ান আলী কয়েছ ফাউন্ডেশন’র চাল বিতরণ || ওসমানীনগরে আজম আলী ট্রাস্ট’র ভাতা ও অনুদান বিতরণ || বালাগঞ্জে অন্ধ হাফিজ’কে ৫০ হাজার টাকা অনুদান প্রদান || রাজনগরের ফতেপুরে আ.লীগ নেতা রাখাল চন্দ্র দাশের জন্মদিন পালন || শেখ হাসিনা’র নেতৃত্বাধীন সরকারের টানা ১যুগ পূর্তিতে শফিক চৌধুরীর দো’আ মাহফিল || বালাগঞ্জের মাহবুবুল আলম চৌধুরীকে ব্রিটিশ অ্যাম্পায়ার মেডেল প্রদান ||

বাবরি মসজিদ ধ্বংস মামলায় ৩২ অভিযুক্তের সবাই খালাস

 প্রকাশিত: ৩০, সেপ্টেম্বর - ২০২০ - ০৪:২৯:২২ PM

কূল ডেস্ক:: বাবরি মসজিদ ধ্বংস মামলায় প্রবীণ বিজেপি নেতা লালকৃষ্ণ আদভানিসহ অভিযুক্ত ৩২ জনের সবাইকে খালাস দিয়েছেন আদালত। বুধবার ভারতের লক্ষ্ণৌর বিশেষ সিবিআই আদালতে এ মামলার রায় ঘোষণা করেন বিচারক সুরেন্দ্রকুমার যাদব। খবর এনডিটিভির

প্রবীণ বিজেপি নেতা লালকৃষ্ণ আদভানি, মুরলিমনোহর জোশী, উমা ভারতীর মতো নেতাদের বিরুদ্ধে মসজিদ ভাঙার ষড়যন্ত্র, পরিকল্পনা ও করসেবকদের উস্কানি দেওয়ার অভিযোগ ছিল।

আদালতে মামলার রায় ঘোষণা করতে গিয়ে বিচারক সুরেন্দ্রকুমার জানান, অভিযুক্তদের কারও বিরুদ্ধে উপযুক্ত কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি। তাই তাদের বেকসুর খালাস দেওয়া হলো।

একইসঙ্গে, বাবরি মসজিদ ধ্বংসের ঘটনা পূর্ব পরিকল্পিত নয় বলেও এ দিন মন্তব্য করেন বিচারক সুরেন্দ্রকুমার যাদব। এমনকি তদন্তকারীরা অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে যে প্রমাণ জোগাড় করেছিলেন, সেগুলি বিকৃত করা হয়েছিল বলেও জানান বিচারপতি।

মামলায় অভিযুক্ত ৩২ জনের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলেন- সাবেক উপপ্রধানমন্ত্রী লালকৃষ্ণ আদভানি ও উত্তরপ্রদেশের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী কল্যাণ সিং, বিজেপি নেত্রী উমা ভারতী, সাবেক কেন্দ্রীয় মন্ত্রী মুরলিমনোহর যোশি, বিনয় কাটিহার, সাক্ষী মহারাজ প্রমুখ।

এদিন লালকৃষ্ণ আদভানি, মুরলিমনোহর জোশী, উমা ভারতী ও কল্যাণ সিং ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যামে আদালতের সঙ্গে যুক্ত হন। বাকিরা আদালতে হাজির হয়েছিলেন।

যেখানে বাবরি মসজিদের অবস্থান সেখানেই রামচন্দ্রের জন্ম হয়েছিল বলে বিশ্বাস করসেবকদের। ১৯৯২ সালের ৬ ডিসেম্বর করসেবকরা বাবরি মসজিদটি ভেঙে দেয়। এরপর দেশ জুড়ে দাঙ্গা শুরু হয়। সরকারি হিসাবমতে, ওই দাঙ্গায় ৩ হাজার মানুষের প্রাণহানি হয়।

আপনার মন্তব্য

সর্বাধিক পঠিত

সর্বশেষ

Top