A PHP Error was encountered

Severity: Warning

Message: fopen(/var/lib/php/sessions/ci_sessionhlnpp52q1leea3qg1cma1anq63qdq77m): failed to open stream: No space left on device

Filename: drivers/Session_files_driver.php

Line Number: 172

Backtrace:

File: /var/www/weeklykushiararkul.com/application/controllers/Home.php
Line: 12
Function: __construct

File: /var/www/weeklykushiararkul.com/index.php
Line: 317
Function: require_once

A PHP Error was encountered

Severity: Warning

Message: session_start(): Failed to read session data: user (path: /var/lib/php/sessions)

Filename: Session/Session.php

Line Number: 143

Backtrace:

File: /var/www/weeklykushiararkul.com/application/controllers/Home.php
Line: 12
Function: __construct

File: /var/www/weeklykushiararkul.com/index.php
Line: 317
Function: require_once

প্রকাশিত সংবাদে সৈয়দ শাহীন আহমদের প্রতিবাদ || Kushiararkul | কুশিয়ারার কূল

Diclearation Shil No : 127/12
সিলেট, রবিবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০, ৫ আশ্বিন ১৪২৭, ০ সফর​ ১৪৪২

প্রকাশিত সংবাদে সৈয়দ শাহীন আহমদের প্রতিবাদ

 প্রকাশিত: ২৩, অগাস্ট - ২০২০ - ০৬:৫৭:২৪ PM

No description available.

বালাগঞ্জ উপজেলার পুর্ব গৌরীপুর ইউনিয়নের চকদৌলতপুর গ্রামের সৈয়দ শাহীন আহমদকে জড়িয়ে সম্প্রতি কয়েকটি অনলাইন নিউজ পোর্টালে সংবাদ প্রকাশ করা হয়েছে বলে শাহীন আহমদ একটি ভিডিও বার্তা সংবাদকর্মীদের কাছে প্রেরণ করেন। দশ মিনিটের ওই ভিডিও বার্তায় সৈয়দ শাহীন আহমদ বলেছেন, বিগত দিনে চকদৌলতপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটিতে আমি সহ-সভাপতি ও আমার বড় ভাই সৈয়দ ফজলুল হক তুরন দুই মেয়াদে সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন।

‘স্কুলের নতুন ভবন নির্মাণের কাজ পায় ‘শামীম ট্রেডার্স’ নামের একটি ঠিকাদারী প্রতিষ্টান। আমি যেহেতু ব্যবসায়ী মানুষ। ওই ঠিকাদারী প্রতিষ্টানের সাথে আমি অংশীদার হয়ে স্বচ্ছভাবে স্কুল ভবনের নির্মাণ কাজ শুরু করি। কাজের গুণগত মান খুবই ভালো; যা সিলেট- ৩ আসনের এমপি সাহেব অবগত আছেন। স্কুল ভবনের কাজ শুরুর পর স্কুলের প্রধান শিক্ষক আব্দুছ ছত্তার নির্মাণ কাজে বাঁধা দিয়ে ফায়দা নেয়ার চেষ্টা করেন। স্কুল ভবন নির্মাণ কাজের সমুদয় টাকা থেকে তিনি আমাদের কাছে ৭ পার্সেন্ট হারে চাঁদা দাবি করেন। দাবিকৃত চাঁদা দিতে অস্বীকৃতি জানালে আব্দুছ ছত্তার নির্মাণ কাজ নিয়ে ভুয়া অভিযোগ তুলেন এবং অপপ্রচার করেন। স্কুল ভবনের ফাইলিং কাজের গুণগত মান নিয়ে ছত্তার মাস্টারের বরাত দিয়ে অনলাইন নিউজ পোর্টালে আমাকে জড়িয়ে যে সংবাদ প্রকাশ করা হয়েছে তা সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন ও অসত্য। আমি এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।’

ভিডিও বার্তায় সৈয়দ শাহীন আরো বলেছেন, ‘আব্দুছ ছত্তার জরা মাস্টার একজন খারাপ প্রকৃতির লোক। শিক্ষকতাকে পুঁজি করে তিনি নানা অন্যায় কর্মকান্ডে সম্পৃক্ত রয়েছেন।এই স্কুলে দায়িত্ব পালনকালীন সময়ে ছত্তার মাস্টার নানা অনিয়ম, দুর্নীতি, স্বজনপ্রীতি ও স্বেচ্ছাচারিতা করে আসছেন, যা এলাকার সর্বস্তরের মানুষ জ্ঞাত রয়েছেন।’

‘এলাকাবাসীও তার এসব অপকর্মের বিরুদ্ধে যেসব লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন আমি তাতে শুধু স্বাক্ষর করেছি। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে তিনি আরো বেপরোয়া হয়ে ওঠেছেন। বিগত দিনে জরা মাস্টার সন্ত্রাসী কর্মকান্ডসহ বিভিন্ন অপকর্মে জড়িত থাকার অভিযোগে তার বিরুদ্ধে দায়ের করা ১৩টি মামলার কাগজ আমার কাছে প্রমাণস্বরূপ সংরক্ষিত আছে।’-সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

Top