Diclearation Shil No : 127/12
সিলেট, সোমবার, ০৬ জুলাই ২০২০, ২১ আষাঢ় ১৪২৭, ১৩ জ্বিলক্বদ ১৪৪১

৩০০ কোটি ডলার ছাড়িয়ে গার্মেন্টসের ক্রয়াদেশ স্থগিত

 প্রকাশিত: ০৩, এপ্রিল - ২০২০ - ০৭:০৩:০৮ PM

গার্মেন্টসের ক্রয়াদেশ স্থগিত ৩০০ কোটি ডলার ছাড়িয়ে

কূল ডেস্ক: করোনাভাইরাসের প্রভাবে পোশাকের ক্রয়াদেশ স্থগিত ৩০০ কোটি ডলার ছাড়িয়ে গেছে বলে জানিয়েছে তৈরি পোশাক মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএ।

শুক্রবার (৩ এপ্রিল) সংগঠনটির পক্ষ থেকে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজিএমইএর পক্ষ থেকে জানানো হয়, এখন পর্যন্ত ১ হাজার ৯৭টি কারখানার ৯৪৫ দশমিক ৩১ মিলিয়ন পিস পণ্যের অর্ডার স্থগিত হয়েছে। এর আর্থিক মূল্য ৩০১ কোটি ডলার।

এদিকে স্বস্তির খবর হচ্ছে খ্যাতনামা অনেক ক্রেতাই এখন ক্রয়াদেশ বাতিলের সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসেছে। তারা তাদের বিদ্যমান ক্রয়াদেশ বহাল রাখছেন। শিপমেন্টের অপেক্ষায় থাকা পণ্য নেয়ার ব্যাপারেও তারা ইতিবাচক ভূমিকা দেখিয়েছেন। ক্রেতাদের এমন সিদ্ধান্তের ফলে করোনার প্রভাবে যে ৩০০ কোটি ডলারের পোশাক ক্রয়াদেশ স্থগিত বা বাতিলের কথা বলা হচ্ছিল তা কমে আসবে।

তৈরি পোশাক মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএ সভাপতি রুবানা হক বুধবার (১ এপ্রিল) এক হোয়াটসঅ্যাপ বার্তায় জানিয়েছেন, এইচএন্ডএম, ইন্ডিটেক্স, পিভিএইচ, টার্গেট এবং কিয়াবির মতো ক্রেতারা আমাদের পাশে এসে দাঁড়িয়েছে। তারা তাদের ক্রয়াদেশ বহাল রাখার কথা জানিয়েছে। আগামী মঙ্গলবার সিএন্ডএ আমাদের সঙ্গে আলোচনা করে তাদের সিদ্ধান্ত জানাবে।

তিনি বলেন, কেউ কেউ স্বাস্থ্যকর্মীদের পেশাদার পিপিই দেয়ার জন্য তাদের একদিনের বেতন ডোনেট করার প্রস্তাব দিয়েছেন। আমরা আশা করি দীর্ঘকাল ধরে যারা আমাদের সঙ্গে আছেন, কঠিন এই দুঃসময়ে তারাও আমাদের সঙ্গে থাকবেন।

তিনি আরো বলেন, ‘আমাদের প্রতি সমর্থন দেয়ায় তাদের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানাই। আশা করি অর্থ প্রদানে তাদের শর্তগুলো এই সময়ে শিথিল থাকবে।’ তবে এখন পর্যন্ত ক্রয়াদেশ বহাল রাখার ফলে ক্ষতি কতটা কমে এসেছে তা জানানো হয়নি বিজিএমইএর পক্ষ থেকে।

ক্রয়াদেশ বাতিল শুরুর দিকে বিজিএমইএ সভাপতি ড. রুবানা হক বলেন, ‘ভয়াবহ অবস্থা চলছে আমাদের। বিভিন্ন দেশ, বিভিন্ন মহাদেশ থেকে সমস্ত ক্রেতারা তাদের ক্রয়াদেশ আপাদত বাতিল বা স্থগিত করছে। বলছে স্থগিত কিন্তু আমাদের জন্য স্থগিত করা কিংবা বাতিল করা একই কথা।’

সর্বাধিক পঠিত

সর্বশেষ

Top