Diclearation Shil No : 127/12
সিলেট, সোমবার, ৩০ মার্চ ২০২০, ১৬ চৈত্র ১৪২৬, ৩ শাবান ১৪৪১

লকডাউন বালাগঞ্জে সুনসান নিরবতা: স্থবির জনজীবন

 প্রকাশিত: ২৬, মার্চ - ২০২০ - ০২:১৫:১৮ PM

Image may contain: house and outdoor

শামীম আহমদ:: সিলেটের বালাগঞ্জে মহামারী করোনা ভাইরাস সংক্রমণ আতঙ্কে সুনসান নিরবতা দেখা দিয়েছে। বৃহস্পতিবার সকাল থেকে পুরো উপজেলা লকডাউন করে দেয়া হয়েছে। বন্ধ করে দেয়া হয়েছে দুর পাল্লার গাড়ি। আঞ্চলিক সড়কে যানবাহনের সংখ্যা কমে যাওয়ায় জন-জীবনের চাকা স্তব্দ হয়ে পড়েছে। প্রতিটি মানুষের চেহারায় যেনো আতঙ্কের ছাপ ভেসে ওঠছে। প্রয়োজন ছাড়া কেউ ঘর থেকে বেরুচ্ছেনা। সার্বক্ষণিক প্রশাসনিক নজরদারি অব্যাহত রয়েছে। সন্ধ্যার সাথে-সাথেই দোকান পাট বন্ধ করে দেয়া হচ্ছে। দ্রব্য মূল্য নিয়ন্ত্রণে বিভিন্ন বাজার মনিটরিং করে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে অসাধু ব্যবসায়ীদের জরিমানা করা হয়েছে।

এরপরও দ্রব্য মূল্যেও লাগাম টেনে ধরা যাচ্ছে না। এছাড়া হোম কোয়ারেন্টাইন অমান্য করায় আইন প্রয়োগ করে ইতিমধ্যে তিন প্রবাসীকে আর্থিক জরিমানা করা হচ্ছে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নির্দেশে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে বুধবার থেকে কন্ট্রোল রোম খোলার ব্যবস্থা করা হয়েছে। করোনা ভাইরাসে লকডাউনকৃত এলাকার নিম্ন আয়ের খেটে খাওয়া মানুষের সাহায্যার্থে বালাগঞ্জ উপজেলা এলজিইডি প্রকৌশলী অফিসের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের উদ্যোগে তহবিল সংগ্রহের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

এদিকে মানুষকে সচেতন করার লক্ষ্যে বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে লিফলেট বিতরণ করা হলেও গেল কয়েকদিনে থামানো যায় নি লোক সমাগম।তবে সেনাবাহিনী মাঠে নামার খবরে যেন পুরো বালাগঞ্জেই একটা নিরবতা বিরাজ করছে। বর্তমান পরিস্থিতি মোকাবেলায় মানবিক উদ্যোগ গ্রহণ করে বালাগঞ্জ উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে স্বেচ্ছাসেবক-ভলান্টিয়ারের দায়িত্ব পালনের আহবান জানিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে। তাতে উপজেলার অনেকেই সাড়া দিয়ে কাজ করার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন বলে জানা গেছে।

ভাইরাস জনিত চিকিৎসা সেবা প্রদানে চিকিৎসক ও নার্সদের সুরক্ষার জন্য মঙ্গলবার উপজেলা প্রাণীসম্পদ দপ্তরের সৌজন্যে বালাগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ১০সেট পারসোনাল প্রটেকটিভ ইকুইপমেন্ট প্রদান করা হয়েছে।

এদিকে পল্লী বিদ্যুৎ থেকে মোবাইল ফোনে ম্যাসেজ দিচ্ছে ঘরে বসে বিকাশের মাধ্যমে বিদ্যুৎ বিল প্রদানের কথা বলা হচ্ছে। এতে সাধারণ মানুষের পক্ষ থেকে তিন মাসের বিদ্যুৎ বিল ও যারা ভাড়াটে থাকেন তাদের পক্ষ থেকেও তিন মাসের বাসা ভাড়া মওকুফের দাবি ওঠেছে। কারণ বর্তমান সময়ে প্রবাসীদের জীবন সংকটাপন্ন অবস্থায় রয়েছে। তারা নিজেরাই অনেক বড় বিপদের মধ্যে আছেন। এ সময়ে কেই-ই টাকা দিতে পাঠাতে পারছেন না। এছাড়া দেশে ব্যবসা-বাণিজ্য বন্ধ থাকায় টাকা আয়ের উৎস নেই। অনেকেই বলছেন- সবার কাছে তো আর লুটেরাদের মত কাড়িকাড়ি টাকা ব্যাংকে নেই। বস্তাভর্তি নগদ টাকাও ঘরে নই। তাই তিন মাসের বিদ্যুৎ বিল বাসা ভাড়া মওকুফ ও ছয় মাসের জন্য ব্যাংক ও এনজিওর কিস্তি বন্ধ রাখার দাবি জানানো হয়েছে।

সচেতন নাগরিকরা বলছেন- করোনাভাইরাস মোকাবিলায় শুধু সরকারি পদক্ষেপই যথেষ্ট নয়। জনগণের সম্মিলিত উদ্যোগ গ্রহণ দেশের এই ক্রান্তিকালে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। মানুষ মানুষের জন্য এই অনুভূতিতে সামর্থ্য অনুযায়ী বিভিন্ন স্তরের মানুষকে বাড়িয়ে দিতে হবে সহায়তার হাত। ইতিমধ্যে বেসরকারি উদ্যোগে তৈরি হচ্ছে চিকিৎসক এবং তাদের সহযোগীদের নিরাপত্তায় পারসোনাল প্রটেকটিভ ইকুইপমেন্ট (পিপিই)। রাজনৈতিক সংগঠন, সামাজিক সংগঠন, ছাত্র সংগঠনসহ বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের উদ্যোগে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করা প্রয়োজন। অনেক সংগঠন মানুষের মাঝে মাস্ক ও হাত ধোয়ার সাবান বিতরণ করছেন।

বালাগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দেবাংশু কুমার সিংহ বলেন, করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে সরকারের পক্ষ নানা প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে। জাতীয় পর্যায়ের বিভিন্ন কর্মসূচি সীমিত করা হয়েছে। এইচএসসি পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে বন্ধ রাখা হচ্ছে। মানুষের ঐক্যবদ্ধ প্রয়াসে এভাইরাসকে প্রতিরোধ করার শক্তি জোগাবে বলে আমি আশাবাদ ব্যক্ত করে সবার সহযোগিতা কামনা করছি।

Top