Diclearation Shil No : 127/12
সিলেট, শনিবার, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১০ ফাল্গুন ১৪২৬, ২৫ জুমাদিউস-সানি ১৪৪১

জৈন্তায় এসএসসি পরীক্ষা দেবে ১হাজার ৯শ ৬৫ জন

 প্রকাশিত: ০২, ফেব্রুয়ারি - ২০২০ - ০১:৪৩:১৩ PM

Related image

কূল ডেস্ক : তিনটি শিক্ষা বোর্ডের অধীনে জৈন্তাপুর উপজেলা থেকে এবার ১ হাজার ৯শ ৬৫ জন শিক্ষার্থী এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছে। গত বছরের চেয়ে বেড়েছে ৩শ ১২জন পরীক্ষার্থী।

সোমবার (৩ ফেব্রুয়ারি) হতে শুরু হয়ে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা চলবে ২৭ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। আর ২৯ ফেব্রুয়ারি থেকে ৮ মার্চের মধ্যে ব্যবহারিক পরীক্ষা নেয়া হবে। ৩ ফেব্রুয়ারি হইতে ২৭ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত চলবে এসএসসি ও দাখিল পরীক্ষা।

এবার পরীক্ষার্থীদের মধ্যে ছাত্রীদের সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে। বেড়েছে স্কুল ও পরীক্ষা কেন্দ্রের সংখ্যা। বর্তমানে তিনটি শিক্ষা বোর্ডের অধীনে জৈন্তাপুর উপজেলায় ২০টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এসএসসি, দাখিল ও ভোকেশনাল পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করবে। সিলেট মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের অধীনে এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করছে ১৩ টি বিদ্যালয়, মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের অধীনে দাখিল পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করছে ৪ টি মাদ্রাসা, এসএসসি ভোকেশনাল পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করছে ৩ টি বিদ্যালয়। গত বছর পরীক্ষা কেন্দ্র ছিল ৪টি, সাব সেন্টার ছিলো ১ টি এবার সাব সেন্টার ১ টি বৃদ্ধি করা হয়েছে।

জৈন্তাপুর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিস সূত্র জানায়, ২০১৯ সালে জৈন্তাপুরে পরীক্ষার্থী ছিলো ১ হাজার ৬শ ৫৩ জন। এ বছর পরীক্ষার্থী ৩শ ১২ জন বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ৯শ ৬৫ জন। পরীক্ষার্থীদের মধ্যে ছাত্র সংখ্যা ১ হাজার ৫৩ জন এবং ছাত্রী সংখ্যা ৯শ ১২ জন।

মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ থেকে জারি করা পরিপত্রে বলা হয়েছে এসএসসি, দাখিল এবং এসএসসি ও দাখিল ভোকেশনাল পরীক্ষার্থীদের পরীক্ষা শুরুর কমপক্ষে ৩০ মিনিট আগে কেন্দ্রে প্রবেশ করে আসন গ্রহণ নিশ্চিত করা। অনিবার্য কারণে কোনো শিক্ষার্থী দেরি করে কেন্দ্রে আসলে রেজিস্টারের নাম, ক্রমিক নং ও বিলম্বের কারণ উল্লেখ করতে হবে। দেরিতে আসা পরীক্ষার্থীদের তালিকা অবশ্যই সংশ্লিষ্ট বোর্ডকে জানাবেন কেন্দ্র সচিব।

কেন্দ্র সচিব ছাড়া অন্য কেউ পরীক্ষা কেন্দ্রে মোবাইল ফোন বা অননুমোদিত ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস ব্যবহার করতে পারবেন না। কেন্দ্র সচিব ছবি তোলা ও ইন্টারনেট ব্যবহারের সুবিধাবিহীন একটি সাধারণ ফোন ব্যবহার করতে পারবেন। অননুমোদিত মোবাইল ফোন বা ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস ব্যবহারকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের পরিপত্রে।

Top