Diclearation Shil No : 127/12
সিলেট, বুধবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৯, ২৮ কার্তিক ১৪২৬, ১৩ রবি-উল-আউয়াল ১৪৪১

বালাগঞ্জ আওয়ামী পরিবার পরিশুদ্ধ হোক, সম্মেলন সফল হোক

 প্রকাশিত: ০১, নভেম্বর - ২০১৯ - ০৩:৩০:০৯ AM - Revised Edition: 30th April 2019

 

হুসাইন আহমদ :....

দেশের ঐতিহ্যবাহী ও প্রাচীন রাজনৈতিক সংগঠন বাংলা‌দেশ আওয়ামী লীগ বালাগঞ্জ উপজেলা শাখার সম্মেলন আজ। সম্মেলন উপলক্ষে বেশ ক’দিন যাবৎ উপ‌জেলার ৬টি ইউ‌নিয়নে বইছে দলীয় নেতা-কর্মীদের উৎসাহব্যঞ্জক কর্ম উদ্দীপনা। সম্মেলনে সংগঠনের কেন্দ্রীয় ও জেলার অনেক নেতৃবৃন্দ উপ‌স্থিত থাকা‌কে কেন্দ্র ক‌রে উপজেলা পর্যায়ের নেতাকর্মীদের পদভারে আজ মুখরিত থাকবে সম্মেলনস্থল। 

সম্মেলন উপলক্ষে সংগঠনের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দসহ সমবেত জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের সকল নেতা-কর্মীদের উষ্ণ সংবর্ধনা জানাচ্ছি। 

একটি রাজনৈতিক সংগঠনের কাউন্সিল ও সম্মেলনকে কেন্দ্র করে এরকম কর্মচাঞ্চল্য, কমিটিকেন্দ্রীক তৎপরতা অস্বাভাবিক কোন বিষয় নয়। বরং একটি গণ-সংগঠনের জন্য এটাই স্বাভাবিক। আজ যে সম্মেলন ও কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হচ্ছে সেখানে একটি ভাল কমিটি আসবে বলেই আমার বিশ্বাস। সম্মেলনের মাধ্যমে নির্বাচিত উপজেলা কমিটিকে আমি আগাম অভিনন্দন জানাচ্ছি। 

আওয়ামী লীগ নামক সংগঠনটির দেশ গঠনে রয়েছে অসামান্য অবদান। এই রাষ্ট্র গঠন থেকে শুরু করে গণতান্ত্রিক অভিযাত্রায় দেশকে বার বার ফিরিয়ে আনার কৃতিত্ব এই দলের। দেশ থেকে স্বাধীনতার চেতনা যখন ভূলুণ্ঠিত, যখন মুক্তিযুদ্ধ ও প্রগতিশীল চর্চা ছিল নিষিদ্ধ, তখন এই সংগঠনটি সামনের কাতারে থেকে প্রতিক্রিয়াশীলতার বিপক্ষে অবস্থান নিয়ে জনগণকে আশান্বিত করে রেখেছে। বটবৃক্ষের মতো শিকড় গাড়া যুদ্ধাপরাধীদের বিচার করার মতো বুকের পাটা দেখিয়েছে এই সংগঠন। দেশে আজ যে উন্নয়নের জোয়ার বইছে তার পিছনেও আওয়ামী লীগের ভূমিকা অপ্রতিদ্বন্দ্বি। বাজার স্থিতিশীল রেখে খেটে খাওয়া মানুষের যাপিত জীবনকে দুঃখ-যন্ত্রণা থেকে রেহাই দেওয়া, বিশ্ব মুরব্বিদের অন্যায় আবদারের কাছে মাথা নত না করে একটি স্বাধীন জাতির মতো জাতীয় স্বার্থে দৃঢ়চেতা অবস্থান বজায় রাখা, আন্তর্জাতিক আদালতে উপযুক্ত কৌশল ও আইনি পদক্ষেপ গ্রহণ করে সমুদ্র সীমার উপর নিজেদের অধিকার প্রতিষ্ঠার করার মতো অনেক কৃতিত্ব জমা আছে ঐতিহ্যশালী এই সংগঠনের ঝাপিতে।

এমন একটি বর্ণিল সংগঠনের এক‌টি শাখা বালাগঞ্জ উপ‌জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন নিয়ে সাধারণ মানুষের আগ্রহ-উৎসাহ অ‌নেক। য‌দিও শুনা যা‌চ্ছে চলমান ক‌মি‌টি আবার পূণর্বহাল হ‌চ্ছে, তারপরও সাধারণ মানুষ আজ তাকিয়ে আছেন দীর্ঘ ১৬ বছর পর কারা আসছেন উপজেলার নেতৃত্বে। জনআগ্রহের এই জায়গাটিতে সংগঠনের কাউন্সিলর ও জেলা ক‌মি‌টির নেতৃত্বের দায়িত্বশীল ও প্রাজ্ঞ বিবেচনাবোধ দরকার। তাঁরা যদি জনগণ ও দলের সর্বস্তরের নেতা-কর্মীদের কাছে গ্রহণযোগ্য একটি কমিটি উপহার দেন তাহলে দল হিসাবে বালাগঞ্জ উপ‌জেলার আওয়ামী লীগ সামনের দিনে উপযুক্ত ভূমিকা রাখতে সক্ষম হবে। 

বালাগঞ্জ আওয়ামী প‌রিবার আজ যে আদর্শিক ক্রান্তিকাল অতিক্রম করছে, সেই সময় পাড় কর‌তে উপ‌জেলার নেতৃবৃন্দ‌কে শুধু নিজের গ্রুপ ও ব্য‌ক্তি স্বা‌র্থের কথা ভাবলে চলবে না। তাদেরকে ভাবতে হবে দেশের মুক্তিযুদ্ধ, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা, মুক্ত বুদ্ধি, প্রগতিশীলতা, অসমাম্প্রদায়িক চেতনা, কৃষক-মজুর খেটে খাওয়া মানুষের অবস্থার উন্নয়নের বখা। দারিদ্র বিমোচনে নিজ এলাকায় জনস‌চেতনতা সৃ‌ষ্টিসহ দে‌শের ম‌ধ্যে সব‌চে‌য়ে বে‌শি পি‌ছি‌য়ে পরা বালাগ‌ঞ্জের উন্নয়নে বি‌শেষ ভূ‌মিকাও রাখ‌তে হ‌বে নবগঠিত কমিটিকে। এছাড়া  নিজ এলাকার স্বার্থরক্ষা ও দেশকে মধ্যম আয়ের স্তরে রূপান্তরের মিশন বাস্তবায়‌নে ঐক্যবদ্ধ ভা‌বে শেখ হা‌সিনার হাত‌কে শ‌ক্তিশালী করার প্রত্যয় নিয়ে এগিয়ে যেতে হবে ঐক্যবদ্ধ হয়ে। 

যে সংগঠন আজ নিজের রাজনৈতিক পরিচয় ছাপিয়ে সর্বস্তরের মানুষের আশা-আকাংঙ্কা পূরণের প্লাটফরমে পরিণত হয়েছে। সেই  সংগঠনের যেকোন বিচ্যুতি মারাত্বক পরিনাম বয়ে আনতে পারে। তাই; আজ যারা দলের নাম ভাঙিয়ে বিভিন্ন সুবিধা আদায়ের প্রতিযোগিতায় লিপ্ত রয়েছেন, সম্মেলনের মাধ্যমে তাদেরকে দল থেকে বিযুক্ত করাও সংগঠনটির আরেক গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব। এই সুবিধাভোগী শ্রেণিটি সর্বদাই মিষ্ট ফলের পোকাস্বরূপ অবস্থান করে। এরা ভিতর থেকে একটি সুপুষ্ঠ ও মিষ্ট ফলকে ঝাঁঝরা করে দেয়। এই শ্রেণিকে ঝেটিয়ে বিদায় করা সংগঠনকে পরিশুদ্ধ করার উপযুক্ত উপায়। 

আগামী নেতৃত্বে শুদ্ধতা আস‌লে বালাগঞ্জের বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ দিন শেষে আওয়ামী লীগের উপজেলা সম্মেলনের প্রতিটি পদক্ষেপ ও সিদ্ধান্তকে মনেপ্রাণে স্বাগত জানাতে পারবে। এই প্রত্যাশায় আমি বালাগঞ্জ আওয়ামী প‌রিবা‌রের আজকের সম্মেলনের সফলতা কামনা করি।

Top