Diclearation Shil No : 127/12
সিলেট, শুক্রবার, ২২ নভেম্বর ২০১৯, ৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ২২ রবি-উল-আউয়াল ১৪৪১

যে কারণে মোল্লা আবু কাওছারকে দেওয়া হয় অব্যাহতি

 প্রকাশিত: ২৩, অক্টোবর - ২০১৯ - ১০:১৬:৪৫ PM - Revised Edition: 30th April 2019

কূল ডেস্ক :: যুবলীগের চেয়ারম্যান পদ থেকে ওমর ফারুক চৌধুরীর অব্যহতির পর একই পরিণতি বরণ করতে হলো ক্ষমতাসীন দলের অপর সহযোগী সংগঠন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মোল্লা মো. আবু কাওছারকে। আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা বুধবার স্বেচ্ছাসেবক লীগের শীর্ষ নেতার পদ থেকে মোল্লা আবু কাওছারকে অব্যাহতির নির্দেশ দিয়েছেন বলে নিশ্চিত করেছেন দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

প্রাথমিকভাবে ওয়ান্ডারার্স ক্লাবের অবৈধ ক্যাসিনো বানিজ্যে জড়িত থাকার অভিযোগ ছিল স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মোল্লা মোহাম্মদ আবু কাওছারের বিরুদ্ধে। পরে তার দুর্নীতিতে সংশ্লিষ্টতার প্রমাণ পাওয়া যায় গ্রেফতার জি কে শামীম ও খালেদ মাহমুদকে জিজ্ঞাসাবাদে। ক্যাসিনো বিরোধী শুদ্ধি অভিযানের প্রথম দিনে (১৮ সেপ্টেম্বর) যে কয়েকটি ক্লাবে অভিযান চালানো হয় তার মধ্যে একটি ওয়ান্ডারার্স ক্লাব। সেখান থেকে উদ্ধার হয় বিপুল পরিমাণ মাদক, জালটাকা এবং ক্যাসিনোর সরঞ্জাম। এই ক্লাবের সভাপতির দায়িত্বে আছেন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মোল্লা মো. আবু কাওছার। অভিযানের সময়ই আলোচনায় আসে তার নাম।

এরই মধ্যে আবু কাওছারের ব্যাংক হিসেব জব্দ করেছে এনবিআর। কেন্দ্রীয় ব্যাংকের কাছে প্রেরণ করা চিঠিতে এনবিআর মোল্লা আবু কাওছার, তার স্ত্রী পারভীন লুনা, মেয়ে নুজহাত নাদিয়া নিলা এবং তাদের প্রতিষ্ঠান ফাইন পাওয়ার সলিউশন লিমিটেডের ব্যাংক হিসাবের লেনদেন স্থগিত রাখার নির্দেশনা দিয়েছে ।

আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সূত্রে জানা গেছে, রাজধানীর গুলশানের নিকেতন থেকে গ্রেফতার যুবলীগ নেতা ও ঠিকাদার কারবারি জিকে শামীমের সঙ্গেও মোল্লা কাওসারের ঘনিষ্ঠতা ছিল বলে জানা যায় ।

সুত্র জানায়, ২০১৫ সালে কাউন্সিলর নির্বাচিত হওয়ার পর ওয়ার্ন্ডারার্স ক্লাবে ক্যাসিনো ব্যবসা শুরু করেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের অপসারিত কাউন্সিলর মমিনুল হক সাঈদ। আর তাকে আশ্রয় প্রশ্রয় দেন মোল্লা আবু কাওছার।

ক্যাসিনোবিরোধী শুদ্ধি অভিযান শুরুর পর আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠনগুলোর মধ্যে যুবলীগ সভাপতি ওমর ফারুক চৌধুরীর পর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মোল্লা কাওছার হলেন দ্বিতীয় ব্যক্তি যাকে নিজ সংগঠন থেকে অব্যাহতি দেয়া হলো।

Top