Diclearation Shil No : 127/12
সিলেট, বুধবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৯, ২৮ কার্তিক ১৪২৬, ১৩ রবি-উল-আউয়াল ১৪৪১

আমি কুলাঙ্গার হারিছ চৌধুরীর চাচাত ভাই : তারেককে বললেন আশিক

 প্রকাশিত: ১৮, অক্টোবর - ২০১৯ - ০৪:২২:২০ PM - Revised Edition: 30th April 2019

 
 

কূল ডেস্ক :: বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সাথে সিলেট জেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটির নেতৃবৃন্দের স্কাইপে রুদ্ধদ্বার বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার বিকাল ৫ থেকে ৬টা পর্যন্ত টানা ১ ঘন্টা বিএনপির পল্টন অফিসে তারেক রহমানের সাথে রুদ্ধদ্বার বৈঠক করেন তারা। এসময় নবগঠিত সিলেট জেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটির নেতৃবৃন্দের সাথে পরিচিত হন তারেক রহমান এবং নেতাদের সাথে বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা করেন।

বৈঠকে আলোচনার এক পর্যায়ে কানাইঘাট উপজেলা পরিষদের তিন বারের নির্বাচিত সাবেক চেয়ারম্যান আশিক চৌধুরী সাথে কথা বলেন তারেক রহমান।

এসময় আশিক চৌধুরী বলেন, আমার আরেকটি পরিচয় আছে, ‘আমি কুলাঙ্গার হারিছ চৌধুরীর আপন চাচাতো ভাই’।

এ ধরণের মন্তব্যে তারেক রহমান নিশ্চুপ থাকেন। তবে, আশিক চৌধুরীর এমন মন্তব্যে বিস্মিত হন সিলেট জেলা বিএনপির নেতৃবৃন্দ।

বৈঠকে উপস্থিত সিলেট জেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটির একাধিক সদস্য এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

উল্লেখ্য, বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া প্রধানমন্ত্রী থাকাকালে তার রাজনৈতিক সচিব ছিলেন সিলেটের কানাইঘাট উপজেলার আলোচিত হারিছ চৌধুরী। বিএনপি-জামায়ত জোট সরকারের প্রভাবশালী নেতা ছিলেন তিনি। দাপুটে হারিছ চৌধুরীর ভাই পরিচয় দিয়ে আশিক চৌধুরী কানাইঘাটসহ সিলেটে প্রভাব বিস্তার করতেন। এমনকি এই পরিচয়ে তিনি তিনবার উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।
এদিকে, জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য ও কানাইঘাট উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আশিক চৌধুরী এমন বক্তব্য অস্বীকার করে বলেছেন, গত বৃহস্পতিবার বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সাথে স্কাইপে জেলা বিএনপির বৈঠকে তিনি এরকম কোন কথা বলেননি। 

তিনি বলেন, \\\'যার হাত ধরে আমি রাজনীতিতে প্রতিষ্ঠিত হয়েছি, তাকে নিয়ে এরকম আপত্তিকর বক্তব্য দেওয়ার প্রশ্নই ওঠে না।   তাকে হেয় করার জন্য কেউ এরকম তথ্য সরবরাহ করে থাকতে পারে।   যা আদৌ সত্য নয়।  তার রাজনৈতিক অবস্থান বিতর্কিত এবং রাজনৈতিক, সামাজিক ও পারিবারিকভাবে তাকে হেয় করতে ষড়যন্ত্রকারীরা গণমাধ্যমে এরকম অসত্য তথ্য সরবরাহ করেছে বলে দাবি করেন তিনি। 

সিলেট জেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও বর্তমান আহ্বায়ক কমিটির সদস্য আলী আহমদেরও দাবি আশিক চৌধুরী এরকম বক্তব্য দেননি। 

Top