Diclearation Shil No : 127/12
সিলেট, মঙ্গলবার, ১৫ অক্টোবর ২০১৯, ৩০ আশ্বিন ১৪২৬, ১৩ সফর​ ১৪৪১

শিরোনাম :
বাবার কোলে রেখে ঘুমন্ত তুহিনকে জবাই করে চাচারা || আত্মপ্রকাশ করতে যাচ্ছে “বঙ্গবীর মানব কল্যাণ সোসাইটি” || বালাগঞ্জে বড়ভাঙ্গা নদীতে মোবাইল কোর্টের অভিযান: ২ লক্ষাধিক টাকার জাল জব্দ || ঢাকায় আসবে ব্রাজিল, আর্জেন্টিনা, বার্সেলোনা ও রিয়াল মাদ্রিদ || গ্যাস সংযোগ আর পাবেন না, আমরা সিলিন্ডারে যাচ্ছি : প্রধানমন্ত্রী || ক্রিকেটে বাউন্ডারি সংখ্যায় জয় নির্ধারণের নিয়ম বাতিল || দিরাইয়ে শিশু হত্যা : নিহত শিশুর বাবাসহ পরিবারের ৩ জন জড়িত || বালাগঞ্জের সাবেক ইউপি সদস্য আব্দুল ল‌তিফ'র দাফন সম্পন্ন || অটোরিকশায় চড়ে সড়ক পরিদর্শনে রাষ্ট্রপতি || প্রধানমন্ত্রীর সাথে দেখা করেছেন আবরারের বাবা-মা ||

বড়লেখা সীমান্তে বিএসএফের গুলিতে বাংলাদেশী নিহত

 প্রকাশিত: ২৪, অগাস্ট - ২০১৯ - ০৭:৩৮:১৯ PM - Revised Edition: 30th April 2019

কূল ডেস্ক :: মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলা সীমান্তে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনীর (বিএসএফ) গুলিতে আব্দুর রূপ (৩৭) নামের এক বাংলাদেশী নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। ভারত থেকে অবৈধ পথে মহিষ আনতে গিয়ে বাংলাদেশ-ভারত সীমান্তের উত্তর ডিমাই এলাকার ওপারে তিনি বিএসএফের গুলিতে মারা যান।

শুক্রবার (২৩ আগস্ট) রাত আনুমানিক ১২টার দিকে এই ঘটনা ঘটে। নিহত আব্দুর রূপ বড়লেখা সদর ইউনিয়নের বিওসি কেছরিগুল (উত্তর) গ্রামের সাজ্জাদ আলীর ছেলে। আব্দুর রূপ তিন সন্তানের জনক।

বিএসএফ তার মৃতদেহ ভারতে নিয়েছে গেছে, স্থানীয় সূত্রে এমন তথ্য পাওয়া যায়। মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বড়লেখা সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সিরাজ উদ্দিন।

সীমান্ত এলাকার স্থানীয় বাসিন্দা সূত্রে জানা গেছে, বড়লেখা উপজেলার বোবারতল বিজিবি ক্যাম্পের আওতাধীন সীমান্তের ১৩৮২ নম্বর মেইন পিলারের সাব পিলার ১ এস এলাকায় কাঁটাতারের বেড়া অতিক্রম করে, শুক্রবার রাতে ১০ থেকে ১৫ জনের বাংলাদেশী গরু ও মহিষ পাচারকারী একটি দল ভারতে অনুপ্রবেশ করে। এসময় দায়িত্বরত বিএসফের সদস্যরা চোরাকারবারিদের লক্ষ করে গুলি বর্ষণ করে। বিএসএফের গুলিতে আহত অন্যরা পালিয়ে গেলেও ঘটনাস্থলেই মারা যান পাচারকারী দলের সদস্য আব্দুর রূপ। বিএসএফ তাঁর লাশ উদ্ধার করে ভারতে নিয়ে গেছে। এ সংবাদ লেখার সময় লাশের সুরতহাল শেষে ভারতের করিমগঞ্জ জেলার পাতাইরকান্দি থানায় নিয়ে যাওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

গুলিতে নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করে বড়লেখা সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সিরাজ উদ্দিন বলেন, ‘সে আমার ইউনিয়নের বাসিন্দা। শনিবার সকালে তার পরিবারের লোকজন আমার বাড়িতে এসে জানান, সে ভারতে গিয়েছিল। সেখানে গুলি হয়েছে। কিন্তু সে ফেরেনি। পরবর্তী সময় বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে সে গুলিতে মারা গেছে। এরপরে বিভিন্নভাবে খোঁজ খবর নিয়ে জানতে পারি সেখানে তার সুরতহাল হয়েছে। লাশ করিমগঞ্জ জেলার পাতাইরকান্দি থানায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

বিয়ানীবাজার বিজিবি ৫২ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল ফয়জুর রহমান বলেন, ‘বড়লেখা সীমান্তের কাঁটাতারের বেড়ার ২০০ গজ ভারতের ভেতরে একজন মারা গেছেন এমন খবর পাওয়া গেছে। তবে তার নাম পরিচয় নিশ্চিত হওয়া যায়নি।’

সর্বাধিক পঠিত

সর্বশেষ

Top