Diclearation Shil No : 127/12
সিলেট, বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৩ আশ্বিন ১৪২৬, ১৭ মহররম ১৪৪১

শিরোনাম :
ছাত্রলীগে পদ পেতে সৃজনশীল পদ্ধতিতে পরীক্ষা দিতে হবে || ওসমানীনগরে ডিপ্লোমা এন্ড রুরাল ম্যাডিকেল এসোসিয়েশনের মতবিনিময় || ওসমানীনগরে পূজা মন্ডপ কমিটি কর্তৃক ইউএনও বরাবর স্বারকলিপি প্রদান || অদ্ভুত কাহিনি; এক গ্রামের সকল মানুষ ও পশু দৃষ্টিহীন! || জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে ভিসির যতো অন্যায় || যুবলীগ নেতার ক্যাসিনোতে অভিযান, আটক ১৪২  || আ.লীগের জাতীয় সম্মেলন উপলক্ষে ১২টি উপকমিটি গঠন || জ্ঞান হারানোর আগে মিন্নির সাথে নয়, রিকশা চালকের সাথে কথা হয় রিফাতের || বালাগঞ্জের বির্ত্তনীয়া প্রাইমারী স্কুলে টিফিন বক্স বিতরণ || যুবলীগ চেয়ারম্যানের বিবৃতি : সমালোচনাকে গুরুত্বের সঙ্গে নিয়েছে যুবলীগ ||

বালাগঞ্জে অতিরিক্ত রিডিং লেখায় জনতা কর্তৃক রিটার আটক!

 প্রকাশিত: ১২, জুন - ২০১৯ - ০৮:০৫:২১ PM - Revised Edition: 30th April 2019

 

বালাগঞ্জ প্রতিনিধি :: বালাগঞ্জে অতিরিক্ত রিডিং লেখায় জনতা কর্তৃক মিটার রিটার আটক করার ঘটনা ঘটেছে। অবশেষে ভবিষৎতে এধরনের কাজ করবে না মর্মে উর্ধতন কতৃপক্ষের আশ্বাসে তাকে মুক্ত করে দেওয়া হয়েছে।

গত ১১ জুন মঙ্গলবার দুপুরে বালাগঞ্জ উপজেলার কায়েস্থঘাট চক এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। স্থানীয় এলাকাবাসী গ্রাহক ও সাংবাদিক হেলাল নির্ঝর জানান বৈদ্যুতিক মিটারে রিডিং অতিরিক্ত লেখায় গ্রাহকদের কাছে আটকা পড়েন মিটার রিডার বিধান নন্দী। সিপবিস-১ এর আওতাধীন কুশিয়ারা ফিডারের আওতাভুক্ত সিলেটের বালাগঞ্জ উপজেলার কায়স্থঘাট চক্ এলাকায় ঘটিত ঘটনা অনুসন্ধানে জানা যায়, প্রায় প্রত্যেক মিটারে অতিরিক্ত রিডিং গ্রহণ করা হয়েছে ১০ ও ১৫ ইউনিট। একই কথা বলেন গ্রাহক শেখ করিম আহমদ।

এব্যপারে প্রশ্ন করা হলে মিটার রিডার বিধান নন্দী জানান, টার্গেট পূরণের লক্ষ্যে কর্তৃপক্ষের নির্দেশে এমনটি করা হয়েছে। সিপবিস-১ এর ডিজিএম মো. ফয়জুল্লাহ'র সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, এমন কোন নির্দেশনা কাউকে দেয়া হয়নি। তিনি বলেন আমি নিশ্চিত করতে পারি গ্রাহকরা সঠিক বিলই পাবেন। মিটার রিডার বিধান জনতারা আটকে রাখে। পরে অবশেষে সিপবিস-১ কাশীকাপন অফিস থেকে প্রশাসনিক কর্মকর্তা, আবাসিক প্রকৌশলী, স্থানীয় চেয়ারম্যান সহ এলাকাবাসীর উপস্থিতিতে মিটার রিডার এর এ দায় স্বীকার করে রিডার বিধান নন্দীকে নিয়ে গেছেন। তারা গ্রাহকদের আশ্বস্থ করেন যে আর কখনো এরকম ঘটনার পুনরাবৃত্তি হবেনা। এব্যাপারে স্থানীয় চেয়ারম্যান হিমাংশু রঞ্জন দাস ঘটনার সত্যতাস্বীকার করে বলেন, গ্রাহকরা ক্ষু্ব্দ হয়েছিল।পরে পল্লীবিদ্যুতের প্রশাসনিক কর্মকর্তা ও আবাসিক প্রকৌশলীরা অতিরিক্ত রিডিং না নেওয়ার প্রতিশ্রুতিতে সৃষ্ট ঘটনার সুন্দর নিস্পতি ঘটে।

সর্বাধিক পঠিত

সর্বশেষ

Top