Diclearation Shil No : 127/12
সিলেট, বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০১৯, ৫ আষাঢ় ১৪২৬, ১৪ শাওয়াল ১৪৪০

শিশুসাহিত্যিক চন্দনকৃষ্ণ পাল-এর জন্মদিন আজ

 প্রকাশিত: ০১, মে - ২০১৯ - ০৬:৫৮:৪৬ PM - Revised Edition: 30th April 2019

অচিন্ত্য আয়মান :: কবি, ছড়াকার, গল্পকার ও শিশুসাহিত্যিক চন্দনকৃষ্ণ পাল-এর জন্মদিন আজ। তিনি ১৯৬৫ সালের ১লা মে মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গল উপজেলার উত্তরসুর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর পিতা নিরোদ রঞ্জন পাল। মাতা শেফালী পাল শেলী।

চন্দনকৃষ্ণ পাল বাবার কাছ থেকে পড়ার নেশা আর বড়ভাই নির্মলেন্দ পাল নিমু-এর কাছ লেখালেখির নেশায় আসক্ত হন।

১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের সময় ভারতের শরণার্থী শিবিরে নয় মাসের জীবন ভিন্ন এক বোধের জন্ম দেয় শিশু চন্দনের মধ্যে। স্বাধীনতা পরবর্তী জীবনের টানাপোড়ন শৈশবেই জীবনকে বুঝতে শেখায়।

১৯৮২ সাল থেকে লেখালেখিতে আত্মনিয়োগ করেন তিনি। কিছুদিন সাংবাদিকতাও করেন। ব্যবস্থাপনায় স্নাতকোত্তর শেষে পল্লীবিদ্যুতায়ন বোর্ডে কর্মরত আছেন।

১৯৯২-৯৩ সালে জড়িত হন লিটলম্যাগ দ্রষ্টব্য প্রকাশনার সাথে। এছাড়া 'ছড়াপত্র প্রবাহ', 'চান্দ্রেয়ী', একফর্মা ছড়াপত্র' এবং কবিতাপত্র নৈ সম্পাদনা করেছেন। উপদেষ্টা সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন সাহিত্য সংস্কৃতির শেকড় সন্ধানী কাগজ ঐতিহ্য একাত্তর।

সাহিত্যের সবগুলো শাখাতেই বিচরণ করা চন্দনকৃষ্ণ পাল শিশু-কিশোরদের জন্য লেখার পাশাপাশি বড়দের জন্যও লিখে চলেছেন দুহাতে।

তাঁর প্রকাশিত গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে: 'ভূতের নাম তিড়িংতিড়িং (কিশোর উপন্যাস)', 'আকাশ নীলে হলুদ পাখি (কিশোর কবিতা)', 'ঘাসফড়িঙের নয়টি পা (ছড়া)', 'গিট্টু ও তিড়িংতিড়িং (শিশুতোষ গল্প)', 'উপমার বাঘমামা (কিশোর উপন্যাস)', 'কালোদানবের পাতাল যাত্রা (কিশোর উপন্যাস)', 'ছোট্ট হাতের লম্বা কাণ্ড (শিশুতোষ গল্প)', 'পরির নাম জুঁই (শিশুতোষ গল্প)।

২০১৮ সালের একুশে বইমেলায় প্রকাশিত তাঁর একমাত্র কাব্যগ্রন্থ 'অবশেষে চৈত্র অন্তিমে'। এছাড়া সম্পাদিত গ্রন্থ 'সিলেটের সূর্য সন্তান'।

তিনি আশির দশকে ছড়া পরিষদ সিলেট-এর পুরস্কার লাভ করেন।

সৌজন্যে : ছড়া বাংলা

সর্বাধিক পঠিত

সর্বশেষ

Top